ইসলাম যা বলছে, ফ্রী ফায়ার হালাল নাকি হারাম

ফ্রী ফায়ার গেমস মুসলমানদের জন্য সম্পুর্ণ রুপে হারাম, হারাম, হারাম এবং ইসলামের ভিত্তিতে নিষিদ্ধ একটি গেমস। এই গেমস কিভাবে কৌশলে করে মুসলমানদের ধর্মিয় অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে যাচ্ছে, এবং মুসলমানদের সময় নষ্ট করছে, ঈমান নষ্ট করছে একের পর এক প্রুফ প্রমাণ সহকারে দেখাব। আমি আশাকরি আজকের এই টিউন দেখার পর আপনি আপনার মোবাইল থেকে ফ্রী ফায়ার গেমস Uninstall করবেন। তাহলে চলুন আর কথা না বাড়িয়ে মূল টপিকে চলে যাই।

১/ প্রথমে আমি আপনাদের দেখাতে চাচ্ছি, এই গেমসে এক পর্যায়ে একটা ফাইটারের এক পাশে লেখা হয়েছিল “আল্লাহ” আরেক পাশে “হোম”। এই বিষয়টি নিয়ে যখন সমালোচনা হয়েছিল সারা বিশ্বে তখন তারা এই গেমস থেকে এটা তুলে নিয়েছে। ভাই ও বন্ধুরা এবার আপনাদের কাছে আমার প্রশ্ন? তারা কেন একপাশে মহান রাব্বুল আলামিনের নাম আরেক পাশে হোম ব্যবহার করল। স্পষ্ট বুঝা যাচ্ছে তারা মুসলমানদের ঈমানের উপর আঘাত আনতে চাইছে।

২/ এই গেমসের এক পর্যায়ে কয়েকটি মুর্তি দেখা যায়। সেখানে আপনারা একটু ভালো ভাবে লক্ষ করলে দেকতে পারবেন, এই একটা মুর্তি দেখতে অনেকটাই ফেরাউনের মুর্তির মতো। হুবহু না মিললেও কমপক্ষে ৮০% ফেরাউনের মুর্তির সাথে মিলে যাচ্ছে।

৩/ এই গেমসের এক পর্যায়ে দেখা যাচ্ছে একজন ব্যক্তির এক চোখ অন্য রকম। যা কিনা দার্জালের সিম্বলের সাথে মিলে যাচ্ছে। আর দার্জালের অনুসারীরা কৌশলে তাদের প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। আর দার্জালের সিম্বল মুসলমানদের জন্য সম্পুর্ণ রুপে হারাম সেটা আপনারা জানেন।

৪/ এই গেমসের একটা পর্যায়ে দেখা যাচ্ছে যে আরবি কিছু লেখা রয়েছে। আর এই আরবি লেখার অর্থ হচ্ছে পুরনো কোন সমাধি বা পুরনো কোন কবর স্থান। বিষয় টি আপনি কিভাবে দেখছেন? কবর স্থান কে তারা তাদের গেমসে উপস্থাপন করল। আর এই বিষয়টি ইসলামের বিধান অনুযায়ী সম্পুর্ণ রুপে হারাম।

বন্ধুরা এই রকম গেমস গুলা ইসলামের বিধানে সম্পুর্ণ হারম। যেই গেমসে শরীর চর্চা থাকবে অর্থাৎ আপনার উদ্দেশ্য থাকবে শরীর চর্চা এই রকম গেমস হালাল। কিন্তু এই গেমসে আপনার কোন উপকারিতা নেই যা হচ্ছে সব ক্ষতির দিক।

এত কিছুর পরেও যদি আপনি এই গেমস না ছাড়তে পারেন যদি আপনাকে এই গেমস খেলতে হয়। আপনি এই গেমসটি ছাড়তে পারবেন না তাহলে আপনি বুঝে নিবেন, আপনি ইসলাম থেকে অনেক দূরে চলে গেছেন। আমি বলব মুসলমানদের আপনারা এই গেমসটি খেলবেন না, সাপোর্ট করবেননা। আমরা যদি তাদের সাপোর্ট করি তাহলে তারা এই রকম গেমস আরো আপডেট করবে। আর আমাদের ইসলামের উপর আঘাত আনবে। মনে রাখতে হবে আমরা সবাই মৃত্যুর পরে সব কিছুর জবাব দিতে হবে। তাই আমরা চেষ্ঠা করব এমন গেমস খেলতে যে গেমস শরীর চর্চার জন্য খেলা হয়। কোন ভাবে হারাম কিছু না হয় সেই গেমস খেলার চেষ্টা করব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *