কম্পিউটার হ্যাং করার মূল ১০টি কারণ

বন্ধুরা আমরা বিভিন্ন কাজের জন্য কম্পিউটার ব্যবহার করে থাকি। যেমন কেউ গ্রাফিক্স ডিজাইন, ওয়েব ডিজাইন, CPA মার্কেটিং, আবার কেউ কেউ ফ্রিলান্সিং এসব কাজ করার সময় যদি আপনার আমার কম্পিউটার হ্যাং করে তাহলে অনেক বিরক্ত লাগে। কম্পিউটার ব্যবহার করার সময় যদি কম্পিউটার হ্যাং করে তাহলে কম্পিউটারের মজাটাই আর থাকেনা। আজ কথা বলব কম্পিউটার হ্যাং করার মূল ১০টি কারণ।

১. আপনার কম্পিউটারের প্রসেসর

কম্পিউটারের প্রসেসরের মান যদি কম হয় এবং আপনার কাজের মান যদি বেশি হয় তাহলে কম্পিউটার হ্যা কম্পিউটার কিনার সময় অবশ্যই কম্পিউটারের মানের দিকটা একটি বিবেচনা করে কিনতে হবে।

২. র‌্যাম

খুবি গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় হলো RAM। মনে করেন আপনার কম্পিউটারের RAM 1GB এখন আপনি ফটোশপ, ইলাস্ট্রেটর অন্য সফটওয়্যার ওপেন করতে চাইলে কম্পিউটার হ্য্যা

৩. হার্ডডিস্ক ও প্রসেসর এর কানেকশন

এই কানেকশন যদি ঠিকঠাক না থাকে তাহলে কম্পিউটার মাঝে মাঝে হ্যাং করবে।

৪. কুলিং ফ্যান

আপনার কম্পিউটারের কুলিং ফ্যান যদি কোন কারণে না ঘোরে তাহলে অথবা আস্তে আস্তে ঘোরে তাহলে প্রসেসর গরম হয়ে কম্পিউটার হ্যাং করবে।

৫. হার্ডডিস্ক

হার্ডডিস্ক যদি মাদারবোর্ড না পায় বা কোন কারণে নষ্ঠ হয়ে যায় তাহলে কম্পিউটার হ্যাং করবে। তাই হার্ডডিস্ক মাঝে মাঝে চেক করা আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ।

৬. অপারেটিং সিস্টেম

আপনি যে অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করেন সেটি যে কোন উইন্ডোজ হতে পারে। এই ওইন্ডোজের যে সফটওয়্যার গুলো আছে বা অ্যাপ্লিকেশন থাকে এগুলোর মধ্যে কোন একটা যদি ডিলিট হয় বা ড্যামেজ হয় তাহলে আপনার কম্পিউটার হ্যাং করতে পারে। কারণ প্রয়োজনীয় সফটওয়্যার যখন অপারেটিং সিস্টেম পাবে না তখন সে বার বার চেষ্টা করবে অপারেটিং সিস্টেম পাওয়ার জন্য। তার ফলে আপনার কম্পিউটার হ্যাং করবে।

৭. কম্পিউটার ভাইরাস

কম্পিউটারে ভাইরাসের কারণে আপনার কম্পিউটার হ্যাং করতে পারে। বিভিন্ন ভাইরাস আছে যে ভাইরাস খুব শক্তিশালী এই ভাইরাস গুলো যদি কোন ভাবে আপনার কম্পিউটারে ডুকতে পারে তাহলে বিভিন্ন সফটওয়্যার ও অপারেটিং সিস্টেমের উপর বেশ প্রেশার  দেয় তাই আপনার কম্পিউটার হ্যাং করতে পারে।

৮. গেমিং

আমরা অনেকেই গেম খেলতে পছন্দ করি। এখন কথা হলো কম পাওয়ার ফুল কম্পিউটারে যদি আমরা বড় ধরনের গেম খেলি তাহলে আমাদের কম্পিউটার হ্যাং করবে। গেম খেলার জন্য আমাদের গেমিং কম্পিউটার প্রয়োজন। অথবা আমাদের পাওয়ার ফুল কম্পিউটার ব্যবহার করতে হবে।
৯. আপনার কম্পিউটারের ফাইল স্টোরিং সিস্টেম, আপনি যদি আপনার কম্পিউটারে থাকা ফাইল গুলো এলোমেলো করে রেখে দেন তাহলে আপনার কম্পিউটার হ্যাং করতে পারে। বা মনে করেন আপনার কম্পিউটারের হার্ডডিস্ক ৫০০ জিবি এখন আপনি ৪৮০ জিবি লোড করে রাখছেন এতে আপনার কম্পিউটারের হার্ডডিস্ক, মাদারবোর্ড, ও র‍্যাম এর উপর প্রেসার পড়ে হ্যাং করতে পারে।

১০. আপনার কম্পিউটারের প্রতি শ্রদ্ধা

আপনি অনেক দিন থেকে কম্পিউটার ব্যবহার করছেন কিন্তু কম্পিউটার পরিস্কার করেন না। এখন আপনার কম্পিউটারে যদি কুলিং ফ্যান, মাদারবোর্ড, RAM, এগুলো যদি ময়লা যুক্ত হয় তাহলে কম্পিউটার হ্যাং করতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *