অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং গাইডলাইন ১ম পর্ব

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এমন একটি পেশা যার মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ মার্কেটার প্রতি মাসে হিউজ পরিমাণ আয় করছে। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে আয়ের কোন লিমিট নেই। সর্বনিম্ন ২০০ ডলার থেকে শুরু করে আনলিমিটেড ইনকাম। যদি আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে সফল হতে এবং আনলিমিটেড ইনকাম করতে চান তাহলে আপনাকে অনেক কঠোর পরিশ্রম করতে হবে এবং অনেক নিয়মকানুন মেনে চলতে হবে। আর আমি আপনাকে শিখাব কিভাবে আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে সফল হবেন। তাহলে শুরু করা যাক- আমদের আজকের আলোচনা।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং শুরু করার আগে আপনাকে ৫টি বিষয় খুব গুরুত্বসহকারে গুছিয়ে নিতে হবে। না হলে আপনি কখনই সফল হতে পারবেন না।

১। আপনার ক্যারিয়ারের প্রতি আপনাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতে হবেঃ

এটা খুবই একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যে আপনি যদি সফল ক্যারিয়ার গড়তে চান তাহলে সম্পূর্ণ মনোযোগ দিতে হবে আপনার ক্যারিয়ারের প্রতি। কোনভাবেই অবহেলা করা যাবে না। খেলাধুলা, বন্ধুদের সাথে আড্ডা, অহেতুক সময় অপচয় থেকে আপনার সফল ক্যারিয়ার গড়ার প্রতি মনোযোগী হতে হবে। যদি আপনার সময় অযথা নষ্ট করতে থাকেন তাহলে কখনই সফল অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার হতে পারবেন না। তাই আপনাকে সময়ে সঠিক ব্যবহার করতে হবে। যারা সফল অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার হয়েছেন তারা তাদের ক্যারিয়ারকে খুব গুরুত্ব দিয়েছেন যার কারনে আজকে তারা সফল হয়েছেন। আমি আপনাদেরকে কয়েকজন সফল অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার এর নাম বলব যারা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং জগতে সফলতার শীর্ষে পৌঁছেছেন। মার্ক লিং, মিসি ওয়ার্ড, শউন কলিন্স, জ্যাক জনসন প্রমূখ। আপনি তাদের জীবনী পড়লেই বুঝতে পারবেন ক্যারিয়ারের প্রতি তারা কেমন গুরুত্ব দিয়েছিলেন।

 

২। আপনাকে পর্যাপ্ত পরিমাণ সময় দিতে হবেঃ

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে সফলতা অর্জন করার জন্য আপনাকে নির্দিষ্ট পরিমাণ সময় ব্যয় করে কাজ শিখতে হবে। দিনে কমপক্ষে ৫ ঘন্টা সময় দিতে হবে। কারন মার্কেটিং কাজটি হল এমন একটি কাজ যা সর্বদা চলমান। আর চলমান কখনও আপনি একদিনে শিখতে পারবেন না। তাই আপনার দৈনিক সময় থেকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং শিখার জন্য একটি রুটিন করে নিন এবং রুটিন মাফিক আপনার কাজের উপর সম্পূর্ণ মনোযোগ দিন, যদি আপনি একজন সফল অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার হতে চান। সফল মার্কেটাররা তাদের সময়কে খুব মূল্যায়ন করেছেন এবং সেই সাথে তাদের কাজকে দ্রুততার সাথে এগিয়ে নিয়ে গেছেন। যার কারণে তারা আজ বিশ্বের সেরা এবং সর্বাধিক সফল অ্যাফিলিয়েট মার্কেটারে পরিণত হয়েছে।

 

৩। আপনাকে আত্ববিশ্বাসী হতে হবেঃ

আপনাকে অবশ্যই আত্ববিশ্বাসী হতে হবে যে আমি পারব। আপনার আত্ববিশ্বাস আপনাকে মার্কেটিং জগতে অনেকদূর এগিয়ে নিয়ে যাবে এবং আপনার কর্ম উদ্যমতাকে আরও বৃদ্ধি করবে। বিপরীতে আপনার যদি নিজের উপর আস্থা রাখতে না পারেন, তাহলে কখনই আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে সফল হতে পারবেন না। কারন কনফিউজড মানুষ কখনও তাদের কাজে সফলতা অর্জন করতে পারে না। আজকে যারা পৃথিবীতে সফল অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার হয়েছেন তারা নিজের উপর আত্ববিশ্বাসী ছিলেন।

 

৪। অব্যাহতভাবে লেগে থাকতে হবেঃ

যে কোনও কাজে সফল হওয়ার জন্য আপনাকে সেই কাজের সাথে অব্যাহতভাবে লেগে থাকতে হবে। কারণ আপনি তাড়াহুড়ো করে কোনও কাজে সফল হতে পারবেন না। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে ধারাবাহিক না হয়ে আপনি কখনই সফল হতে পারবেন না। মার্কেটিং মানে পণ্য বা পরিষেবা প্রচার এবং বিক্রয় করা। লক্ষ লক্ষ মার্কেটার বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটিং কোম্পানি থেকে পণ্য প্রচার এবং বিক্রি করছে। সুতরাং আপনি বুঝতে পারছেন যে এটি একটি প্রতিযোগিতামূলক কাজ। তাই কখনও থামবেন না,  সাফল্য না আসা পর্যন্ত ধারাবাহিকতায় লেগে থাকুন। আর একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হ’ল কয়েক দিন পর পর কাজ বা নিস পরিবর্তন করা যাবে না। আপনি আজ করবেন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং আবার ২ মাস পরে শুরু করবেন ওয়েব ডেভেলপিং, তাহলে জেনে রাখুন আপনি কখনও সফল হতে পারবেন না।  আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করবেন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাই আপনাকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের সাথে লেগে থাকতে হবে।

 

৫। আপনাকে অবশ্যই কৌশলী হতে হবেঃ

মার্কেটিং মানে আপনি জানেন। যেহেতু এটি একটি প্রতিযোগিতামূলক কাজ, তাই আপনাকে খুব কৌশলী হতে হবে। আপনি যে কোম্পানির মার্কেটিং করছেন তার সমস্ত নিয়মকানুন অবশ্যই মেনে চলতে হবে। পণ্য নির্বাচন, পণ্য প্রচার ইত্যাদি সম্পর্কে আপনাকে কৌশলী হতে হবে। কৌশলী না হয়ে আপনি সফল অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার হতে পারবেন না। সুতরাং আপনার বিভিন্ন ফোরামে নিয়মিত আপডেট হতে হবে যাতে আপনি মার্কেটিংয়ের সমস্ত নিয়মকানুন জানতে পারেন। কিছু অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং ফোরামের নামঃ

 

উপসংহারঃ আপনি বিষয়গুলো পড়ে হয়তো বলবেন এগুলো যে কোন কাজের সফলতার জন্য স্বাভাবিক বিষয়। আমি আপনার সাথে একমত। কিন্তু আমরা অধিকাংশ হেরে যায় যদি আমাদের মধ্যে উপরোক্ত বিষয়গুলোর অভাব থাকে। তাই আমি আপনাকে বলছি যে যদি আপনি সফল অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার হতে চান, তাহলে আপনাকে অবশ্যই ৫টি বিষয় ওকে থাকতে হবে। যদি ওকে থাকে তাহলে আপনাকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে স্বাগতম। পরবর্তী গাইডলাইনের জন্য অপেক্ষা করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *