Xiaomi মোবাইলের মধ্যেই থাকবে Earbuds!

Xiaomi এমন একটি কোম্পানি যারা তাদের প্রোডাক্টে নতুন প্রযুক্তি প্রয়োগ করতে ভয় পায় না। আমরা দেখেছি যে, কোম্পানিটি কিছু অসাধারণ হাই টেক প্রোডাক্ট যেমনঃ Mi smart curtains বা EDON foldable fan বাজারে নিয়ে আসে। আর এখন, সাম্প্রতিক একটি প্রতিবেদন অনুসারে, কোম্পানিটি এমন একটি স্মার্টফোন নিয়ে কাজ করছে যার মধ্যেই ওয়্যারলেস Earbuds রাখার যায়গা থাকবে।

Dutch media house এর রিপোর্টে LetsGoDigital এ বলা হয়েছে যে, Xiaomi সম্প্রতি চীন ও নেদারল্যান্ডসে পেটেন্ট এর জন্য দুটি আবেদন করেছে। আর এই দুটি পেটেন্ট এর স্মার্টফোনের ভিতরেই ওয়্যারলেস Earbuds এর দুইটি স্লট থাকবে বলে উল্লেখ রয়েছে। যদি তারা এই ডিজাইনের স্মার্টফোন তৈরি করতে পারে তাহলে এক্সটারনাল চার্জিং ওয়্যারলেস Earbuds এর বিদায় ঘন্টা বাজছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এটি কিভাবে কাজ করবে?

এখন, পেটেন্ট অনুসারে বলতে গেলে, এই ওয়্যারলেস Earbuds টি স্মার্টফোনের উপরিভাগে দুইটি স্লটে পাইপ আকারে থাকবে। আর সম্ভাব্য সমস্যা দূর করার জন্য, পেটেন্ট এর মাধ্যমে Xiaomi জানিয়েছে যে Earbuds দুইটির “মাথা” ফ্ল্যাক্সিবল থাকবে আর যখন এটা বের করা হবে তখন তা ব্যবহারকারীর কানে সহজেই স্থাপন করা যাবে।

তবে Xiaomi থেকে উক্ত স্মার্টফোনের ডিজাইন কেমন হবে তার কোন ছবি প্রকাশ করা হয়নি। যাইহোক, LetsGoDigital এর লোকেরা পেটেন্ট এর উপর ভিত্তি করে স্মার্টফোনের একটি সম্ভাব্য ডিজাইন তৈরি করেছে। নিচের ছবিতে সম্ভাব্য স্মার্টফোনের মডেলটি দেখানো হল।

এখন, আপনি উপরের ছবিতে দেখতে পাচ্ছেন, ফোনের উপরিভাগে Earbuds এর জন্য দুইটি স্লট রয়েছে যা একদম ফোনের ভিতর পর্যন্ত চলে যায়। তাছাড়াও পেটেন্ট অনুসারে এই Earbuds গুলো ডিভাইসের মেইন স্পিকার হিসেবেও কাজ করবে এমন ভাবে ডিজাইন করা হবে।

ডিজাইনের নেগেটিভ দিকসমূহ

আমার ব্যক্তিগত মতামত অনুযায়ী বলতে গেলে, আমি এই ডিজাইন নিয়ে কিছু চিন্তা ভাবনা করে দেখেছি এবং সত্যিই আমি এই ডিজাইনটি পছন্দ করেছি এই কারণে যে Earbuds চার্জ করার জন্য এক্সটারনাল বক্স নিয়ে আর ঘুরতে হবে না। তবে এই ডিজাইনটি বাস্তবায়ন করা Xiaomi এর জন্য কিছুটা কষ্টসাধ্যও বটে। নিচে এর কিছু নেগেটিভ দিক তুলে ধরা হল।

প্রথমত, তাদের Earbuds এর থিকনেস নিয়ে চিন্তা করতে হবে কারণ Earbuds এর থিকনেস এর উপর স্মার্টফোনের থিকনেস নির্ভর করে। সুতরাং, Earbuds এবং স্মার্টফোনের থিকনেস একে অপরের সাথে জড়িত।

দ্বিতীয়ত, ফোনের উপরিভাগে যেহেতু দুইটি বড় আকারে স্লট থাকবে সেহেতু ফোনের হাইজিন নিয়েও চিন্তা ভাবনা করা দরকার। বিশেষত কোভিড ১৯ এর মত মহামারীর এই সময়ে চীনা কোম্পানিগুলো Earbuds পরিষ্কার রাখার জন্য চিন্তা করতে হবে কারণ বেশিরভাগ সময়ই আমারা আমাদের ফোন পকেটে রাখি। সুতরাং যদি ধুলা-বালি এবং অন্যান্য ছোট কণাগুলো স্লটের ভিতরে এবং তারপরে তা Earbuds এর ভিতরে প্রবেশ করে তাহলে Earbuds যদি ব্যবহারকারী তার কানে দেয় তাহলে তা তার কানে প্রবেশ করবে।

এগুলো ছাড়াও, আরও বেশ কয়েকটি সমস্যা রয়েছে যা এই ডিজাইনের জন্য বড় হুমকিস্বরূপ। উদাহরণস্বরূপ, এই ডিজাইনটির সাথে, স্মার্টফোনটি water-resistance হওয়ার কোন সম্ভাবনা থাকবে না, এর ফলে এটি বাজারের অন্যান্য স্মার্টফোনের তুলনায় একে দুর্বল ডিভাইস হিসেবে পরিণত করবে।

শেষ কথা

Xiaomi এমন ইনোভেটিভ আইডিয়া নিয়ে কাজ করে দেখে সত্যিই কোম্পানিটিকে অনেক ভাল লাগে, তবে এই টিউনে নিরপেক্ষ ভাবে সবকিছু তুলে ধরার চেষ্টা করেছি যাতে করে আপনাদের কাছে পুরো বিষয়টি পরিষ্কার হয়। আজকে এই পর্যন্তই পরবর্তী টিউনে আবারও দেখা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *